ক্র্যাক সফটওয়্যার কেন ব্যবহার করা হয়?

ক্র্যাক সফটওয়্যার কেন ব্যবহার করা হয়?

টিপস এন্ড ট্রিকস
image_pdfimage_print

আসলে আমাদের দেশের অনেক মানুষই জানেন না যে সফটওয়্যার নামে এক অদৃশ্য জিনিস আছে যা নিজের পকেটের টাকা দিয়ে কিনে ব্যবহার করতে হয়। এক গবেষণায় দেখা গেছে যে বাংলাদেশের ৯০% এর বেশি কম্পিউটারে ক্র্যাক সফটওয়্যার ব্যবহার করা হয়। তাহলে কেন বাংলাদেশে এতবেশি সফটওয়্যার পাইরেসি তা নিয়ে হয়ত আপনাদের চিন্তা শুরু হয়ে গেছে। তবে চলুন জেনে নেই বাংলাদেশে এত বেশি সফটওয়্যার পাইরেসি কেন হয়।

সবার আগে জানতে হবে যে আসলে পাইরেসি কী জিনিস। যখন আমরা কোন পেইড সার্ভিস বা সফটওয়্যার কোনভাবে মডিফাই বা ক্র্যাক করে ব্যবহার করি তখন সেটাকে আমরা ডিজিটাল জগতে পাইরেসি বলে থাকি।

আমাদের দেশে পাইরেসি বেশি হবার বেশ কিছু কারণ আছে। প্রথমত আমাদের দেশের মানুষের ক্রয় ক্ষমতা। হ্যাঁ, আমরা যদি একটু বাংলাদেশে উইন্ডোজ ১০ এর খুচরা মূল্য দেখি তাহলে দেখব যে এর মূল্য ১০ হাজার থেকে ১২ হাজার টাকার মধ্যে। আমরা অনেকেই এত টাকা দিয়ে একটা সফটওয়্যার কেনার মত সাবলম্বি নই। তাই আমরা অনেকেই সফটওয়্যার ক্র্যাক করে ব্যবহার করি।

আরেকটা মূল কারণ হলো আমাদের গবেষণার অভাব। আমরা অনেকেই জানিই না যে প্রিমিয়াম সফটওয়্যার গুলোরও বেশ কিছু অলটারনেটিভ আছে। আমরা চাইলেই উইন্ডোজ এর পরিবর্তে লিনাক্স ব্যবহার করতে পারতাম। যেমন আমি এই লেখাটি আমার লিনাক্স কম্পিউটারে বসে লিখছি কেননা আমার উইন্ডোজ কেনার সামর্থ্য নেই আর আমি জেনুইন ব্যবহার করতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি। তাছাড়া আরও অনেক কারণ আছে আমার লিনাক্স ব্যবহার করার সেটা নিয়ে অন্য এক লেখায় আলোচনা করব। আর শুধু উইন্ডোজ নয়, অফিস, ফটোশপ, ভিডিও এডিটর এগুলোরও বেশ কিছু অলটারনেটিভ আছে মার্কেটে। আপনি চাইলে সেগুলো দেখে আসতে পারেন।

আরেকটা মূল কারণ হলো আমাদের অপরাধ বোধের অভাব। এইটা অনেকের কাছেই খারাপ লাগতে পারে তাই আগেই ক্ষমা চাচ্ছি কিন্তু আমরা অনেকেই আসলে জানি না যে সফটওয়্যার পাইরেসি করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ। আবার অনেকে জেনেও না জানার ভান করে ব্যবহার করে যাচ্ছি। তবে হ্যাঁ, আপনার বিরুদ্ধে আইন ততক্ষণ পর্যন্ত অবস্থান নেবে না যতক্ষণ না পর্যন্ত আপনি যাদের সফটওয়্যার বা সার্ভিস পাইরেসি করেছেন তারা আপনার বিরুদ্ধে অবস্থান নিচ্ছে।

এই অবস্থায় আপনার মনে প্রশ্ন জাগতেই পারে যে আসলে মাইক্রোসফট বা এডোবি কি জানেনা যে আমরা তাদের সফটওয়্যার ও সার্ভিস ক্র্যাক করে ব্যবহার করছি?

 

 

Your Online Business Partner.

ডোমেইন রেজিঃ করুন মাত্র ৪৯ টাকায়…

.com, .net, .org, .me, .media, domains, .computer, .digital, .ltd, .school, .university, .clinic, .tv, xyz, .help সহ আরো প্রায় ১৫০০ নতুন ডোমেইন পাওয়া যাচ্ছে । স্বল্প মূল্যে আপনার পছন্দের ডোমেইনটি রেজিঃ করার এখনই সুবর্ণ সুযোগ। ৳ ৪৯ টাকার অফারটি শুধুমাত্র ১ম বছরের জন্য ও  বাংলাদেশ সরকার অনুমোদিত কোম্পানি , এনজিও , ফাউন্ডেশন, সংস্থা, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।

আমরা যে সকল ওয়েবসাইট ও সফটওয়্যার তৈরি করে থাকিঃ

✪ কোম্পানীর ওয়েবসাইট                                                            ✪ মুদির দোকান ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার

✪ নিউজ পেপার ওয়েবসাইট                                                        ✪ ট্র্যাভেল এজেন্সি উইথ প্যাকেজ বুকিং সফটওয়্যার

✪  ফ্যাশন হাউসের ওয়েবসাইট                                                    ✪ পয়েন্ট অফ সেল, টিকেট বুকিং সফটওয়্যার

✪  ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট                                                  ✪ ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার

✪  ট্র্যাভেল অ্যান্ড ট্যুরিজ্ম ওয়েবসাইট                                         ✪ ব্লাড ডোনেসন ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার

✪  বিউটি পার্লার এবং জিমের ওয়েবসাইট                                      ✪ ইনভেন্টরী এন্ড স্টক ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার

✪  ফাইনেন্সিয়াল এসোসিয়েশন ওয়েবসাইট                                    ✪  গার্মেন্টস ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার

✪  ইন্টেরিয়র ডিজাইন কোম্পানী ওয়েবসাইট

আরো জানতে ও সেবা পেতে এখুনি রিসেলার, সেলার সেন্টারে সরাসরি যোগাযোগ করুন।

আকর্ষণীয় কমিশনে রিসেলার ও সেলার সেন্টার দেয়া হচ্ছে…

সমাহার সফট

⌂ প্রধান কার্যালয়ঃ সিকদার প্লাজা (১ম ও ২য় তলা), লতাপাতা বাজার, কাপাসিয়া, গাজীপুর – ১৭৩০

মোবাইলঃ ০১৭১১১১৩৮৫২ , ই-মেইলঃ support@samaharsoft.net

আশা করি এই পোস্টটি আপনাকে দরকারী কিছু তথ্য দিয়েছি। পরবর্তী পোস্ট পাওয়ার জন্য সাথেই থাকুন…

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *