image_pdfimage_print

টিকটক-উইচ্যাট নিষিদ্ধে নির্বাহী আদেশে ট্রাম্পের সই

চীনভিত্তিক প্রযুক্তি কোম্পানি বাইটডান্স নিয়ন্ত্রিত শর্ট ভিডিও তৈরির সোস্যাল মিডিয়া অ্যাপ টিকটক যুক্তরাষ্ট্রে নিষিদ্ধ করতে নির্বাহী আদেশে সই করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। শুধু তা-ই নয়; একই সঙ্গে আরেক চীনা ইন্টারনেট কোম্পানি টেনসেন্ট নিয়ন্ত্রিত টেক্সট ও ভয়েস মেসেজিং অ্যাপ উইচ্যাটকেও যুক্তরাষ্ট্রে নিষিদ্ধ করতে দ্বিতীয় আরেকটি নির্বাহী আদেশে সই করেছেন। উভয় নির্বাহী আদেশ কার্যকর হবে ৪৫ দিন পর। অর্থাৎ দেড় মাস পর বাইটডান্স ও টেনসেন্টের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে সব ধরনের আর্থিক লেনদেন বন্ধ হয়ে যাবে এবং বন্ধ থাকবে প্রতিষ্ঠান দুটি নিয়ন্ত্রিত সেবা টিকটক ও উইচ্যাটের কার্যক্রম। খবর বিবিসি। গত বৃহস্পতিবার ডোনাল্ড ট্রাম্প স্বাক্ষরিত নির্বাহী আদেশে বলা হয়, জাতীয় নিরাপত্তার জন্য বড় ধরনের হুমকি টিকটক ও উইচ্যাট। যে কারণে সেবা দুটির নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া উচিত। মার্কিন প্রেসিডেন্টের নির্বাহী আদেশ বৈশ্বিক প্রযুক্তি খাতে ওয়াশিংটন ও বেইজিংয়ের একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তারের দ্বন্দ্বে নতুন মাত্রা যোগ করবে বলে মনে করা হচ্ছে। গত সপ্তাহে নিরাপত্তা দুর্বলতার অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রে টিকটক নিষিদ্ধে নির্বাহী আদেশে সই করার ঘোষণা দিয়েছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। একই সঙ্গে বাইটডান্সকে টিকটকের যুক্তরাষ্ট্রের কার্যক্রম মার্কিন কোনো প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রির পরামর্শ দিয়েছিলেন। এরই মধ্যে টিকটকের যুক্তরাষ্ট্রের কার্যক্রম অধিগ্রহণে আগ্রহ প্রকাশ করেছে সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফট। বিষয়টি নিয়ে এরই মধ্যে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে বেইজিং। যেখানে হুশিয়ার করা হয়, চীন টিকটক ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের যে কোনো পদক্ষেপ নাকচ করতে সক্ষম। বেইজিংয়ের দাবি, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয় শর্ট ভিডিও তৈরির অ্যাপ টিকটকের স্থানীয় কার্যক্রম নানা অজুহাত ও অপকৌশলে বাগিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন, যা কোনো পরিস্থিতিতেই মেনে নেয়া হবে না বলে হুঁশিয়ার করে দিয়েছে চীন। সম্প্রতি চায়না ডেইলির এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, বৈশ্বিক প্রযুক্তি শিল্পে প্রতিযোগিতা নয়; একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তারে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন ‘আমেরিকা ফার্স্ট’ নীতি অনুসরণ করছে। যুক্তরাষ্ট্রে চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো নিয়মিত হেনস্তার শিকার হচ্ছে। চীনা প্রতিষ্ঠানগুলোর অগ্রগতি থামাতে একের পর এক অন্যায় অভিযোগ করা হচ্ছে। মার্কিন প্রতিষ্ঠানগুলোকে টেক্কা দিতে সক্ষম সব চীনা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ওয়াশিংটন তথ্য নিরাপত্তার অভিযোগ তুলছে, যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে ব্যবসার দিক থেকে দাবিয়ে রাখতে পরিকল্পিত ধ্বংসলীলা চালাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। প্রতিবেদনে যোগ করা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের এমন অপকৌশলের জবাব দেয়ার যথেষ্ট সুযোগ ও পন্থা চীনের হাতে রয়েছে। চীন প্রশাসন তাদের পরিকল্পিত ধ্বংসযজ্ঞ চালানো শুরু করলে তা মার্কিন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য খুব একটা ইতিবাচক হবে না। অন্যদিকে গত সোমবার মাইক্রোসফটের বিবৃতিতে বলা হয়, তারা টিকটকের যুক্তরাষ্ট্রের কার্যক্রম অধিগ্রহণে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে। টিকটক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে অধিগ্রহণ বিষয়ে আলোচনাতেও বসেছে মাইক্রোসফট। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে টিকটকের যুক্তরাষ্ট্র কার্যক্রমের মালিকানা বদল না হলে জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে দেশটিতে টিকটকের কার্যক্রম বন্ধ করা হতে পারে। যুক্তরাষ্ট্রের নিরাপত্তার জন্য হুমকি হতে পারে মনে হলে চীনভিত্তিক সফটওয়্যার জায়ান্টগুলোর বিষয়ে আগামীতে ব্যবস্থা নেবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলে জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। তার ভাষ্যে টিকটক সরাসরি চীনা কমিউনিস্ট পার্টিকে তথ্য দিচ্ছে। যদিও চীন সরকারের সঙ্গে তথ্য শেয়ার বা চীন সরকার দ্বারা নিয়ন্ত্রণের অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে টিকটক কর্তৃপক্ষ। সম্প্রতি এক সাক্ষাত্কারে মাইক পম্পেও বলেন, জাতীয় নিরাপত্তার জন্য ঝুঁকিপূর্ণ এবং চীনা কমিউনিস্ট পার্টির সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা রয়েছে এমন চীনভিত্তিক সফটওয়্যার কোম্পানি বা তাদের সেবার বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়া হবে। এ ধরনের অসংখ্য প্রতিষ্ঠান যুক্তরাষ্ট্রে ব্যবসা করছে, যারা চীন সরকারের কাছে তথ্য পাচার করছে বলে আমরা মনে করছি। এসব গুরুত্বপূর্ণ তথ্যের মধ্যে রয়েছে ফেসিয়াল রিকগনিশন প্যাটার্ন, ঠিকানা, ফোন নম্বর ও কনট্যাক্ট। অন্যদিকে অনেক রিপাবলিকান সিনেটর টিকটকের যুক্তরাষ্ট্রের কার্যক্রমের নিয়ন্ত্রণ অন্য প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রির পরিকল্পনায় সম্মতি দিয়েছেন। সঠিক উত্তর কী হতে পারে? মাইক্রোসফটের মতো প্রতিষ্ঠানের হাতে টিকটকের নিয়ন্ত্রণ যাওয়া। এতে দুই কুল রক্ষা হবে। প্রতিযোগিতাও বাঁচিয়ে রাখা যাবে, আবার চীনা কমিউনিস্ট পার্টির হাত থেকে তথ্য বাঁচানো যাবে বলে যুক্তি উপস্থাপন করা হয়েছে। ডোনাল্ড ট্রাম্পের নিষেধাজ্ঞা এড়াতে এরই মধ্যে টিকটকের প্রধান কার্যালয় চীন থেকে সরানোর উদ্যোগ নিয়েছে বাইটডান্স। চীনের বাইরে প্রধান কার্যালয় নির্মাণে টিকটকের কাছে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে লন্ডন। তবে বিষয়টি নিয়ে এখনো চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। যে কারণে লন্ডনের পাশাপাশি অন্যান্য অঞ্চল নিয়েও ভাবতে হচ্ছে টিকটক কর্তৃপক্ষকে। কার্যক্রমে স্বচ্ছতা আনতে এর আগে ওয়াল্ট ডিজনির সাবেক কো-নির্বাহী কেভিন মেয়ারকে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে টিকটক। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক। টিকটকের নতুন সিইও প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে ওঠা চীন সরকারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার অভিযোগ এড়াতে চীনের বাইরে কার্যালয় নির্মাণের পরিকল্পনা নিয়েছেন।

Continue Reading

ওরাকল-টিকটকের চুক্তি পর্যালোচনা করবে হোয়াইট হাউজ

চীনভিত্তিক বাইটডান্স নিয়ন্ত্রিত শর্ট ভিডিও তৈরির সোস্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম টিকটক নিজেদের মার্কিন কার্যক্রম পরিচালনা অব্যাহত রাখতে ওরাকল করপোরেশনের সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়েছে। বহুল আলোচিত এ চুক্তি পর্যালোচনা করা হবে বলে গত মঙ্গলবার জানিয়েছেন হোয়াইট হাউজের উপদেষ্টা জারেদ কুশনার। খবর রয়টার্স। গত ৬ আগস্ট মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রে টিকটক নিষিদ্ধে এক নির্বাহী আদেশে সই করেন। ওই আদেশে বলা হয়, জাতীয় নিরাপত্তার জন্য বড় ধরনের হুমকি টিকটক। যে কারণে টিকটকের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া উচিত। শুধু টিকটক নয়; একই সঙ্গে আরেক চীনা ইন্টারনেট কোম্পানি টেনসেন্ট নিয়ন্ত্রিত টেক্সট ও ভয়েস মেসেজিং অ্যাপ উইচ্যাটকেও যুক্তরাষ্ট্রে নিষিদ্ধ করতে দ্বিতীয় আরেকটি নির্বাহী আদেশে সই করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। একই সঙ্গে টিকটকের মার্কিন কার্যক্রম যুক্তরাষ্ট্রের কোনো প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রি করে দিতে সময় বেঁধে দেয়া হয়, যা গত মঙ্গলবার শেষ হয়। নির্দেশনা অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ের মধ্যে মার্কিন কার্যক্রম চালু রাখতে ওরাকলের সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়েছে টিকটকের প্যারেন্ট কোম্পানি বাইটডান্স। কিন্তু নির্বাহী আদেশে মার্কিন কার্যক্রম যুক্তরাষ্ট্রের কোনো প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রি করে দেয়ার কথা বলা হয়েছে। যে কারণে ওরাকলের সঙ্গে কী ধরনের চুক্তিবদ্ধ হয়েছে টিকটক কর্তৃপক্ষ তা পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে খতিয়ে দেখতে চাইছে হোয়াইট হাউজ। টিকটকের যুক্তরাষ্ট্রের কার্যক্রম কিনতে একগুচ্ছ মার্কিন কোম্পানি রীতিমতো প্রতিযোগিতায় লিপ্ত হয়েছিল। শুরুতে বৈশ্বিক সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফট অ্যাপটির যুক্তরাষ্ট্রের কার্যক্রম কিনতে আলোচনা শুরু করলেও পরে এ প্রতিযোগিতায় নাম লিখিয়েছে মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটার। টিকটকের যুক্তরাষ্ট্রের কার্যক্রম কিনতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে ওরাকল করপোরেশন। তবে ওরাকল শুধু টিকটকের যুক্তরাষ্ট্রের কার্যক্রম নয়; একই সঙ্গে কানাডা, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের কার্যক্রমও কেনার প্রস্তাব দিয়েছিল। ওরাকল টিকটকের যুক্তরাষ্ট্রের কার্যক্রম কিনতে অ্যাপটির কয়েকটি মার্কিন বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কাজ করে আসছিল। এ নিয়ে টিকটকে বিনিয়োগ থাকা জেনারেল আটলান্টিক ও সিকোইয়া ক্যাপিটালের সঙ্গে একাধিকবার আলোচনায় বসেছিল প্রতিষ্ঠানটি। শেষ পর্যন্ত তড়িঘড়ি করে কী ধরনের শর্তে প্রতিষ্ঠান দুটি চুক্তিবদ্ধ হয়েছে তা এখনো পরিষ্কার নয়। টিকটক নিজেদের কার্যক্রম নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পাশাপাশি আরো কয়েকটি দেশে চাপে রয়েছে। বিবৃতিতে টিকটক জানায়, যুক্তরাষ্ট্রে তাদের ব্যবসা ধ্বংস করতে অপ্রত্যাশিত পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এমনকি তাদের যুক্তরাষ্ট্রের কার্যক্রম বিক্রি করতে বাধ্য করার মতো পরামর্শ দেয়া হয়েছে। তথ্য নিরাপত্তার অজুহাতে দেশটিতে তাদের সঙ্গে অবিচার করা হচ্ছে। যে কারণে বিষয়টি নিয়ে প্রতিষ্ঠানটি আইনের আশ্রয় নেয়া পর্যন্ত সিদ্ধান্ত জানিয়েছিল। টিকটক ইস্যুতে ট্রাম্প প্রশাসনের সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা ও হুঁশিয়ারি দিয়েছে চীন। বেইজিংয়ের দাবি, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয় শর্ট ভিডিও তৈরির অ্যাপ টিকটকের স্থানীয় কার্যক্রম নানা অজুহাত ও অপকৌশলে বাগিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন, যা কোনো পরিস্থিতিতেই মেনে নেয়া হবে না। বৈশ্বিক প্রযুক্তি শিল্পে প্রতিযোগিতা নয়; একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তারে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন ‘আমেরিকা ফার্স্ট’ নীতি অনুসরণ করছে। যুক্তরাষ্ট্রে চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো নিয়মিত হেনস্তার শিকার হচ্ছে। চীনা প্রতিষ্ঠানগুলোর অগ্রগতি থামাতে একের পর এক অন্যায় অভিযোগ করা হচ্ছে। মার্কিন প্রতিষ্ঠানগুলোকে টেক্কা দিতে সক্ষম সব চীনা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ওয়াশিংটন তথ্য নিরাপত্তার অভিযোগ তুলছে, যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে ব্যবসার দিক থেকে দাবিয়ে রাখতে পরিকল্পিত ধ্বংসলীলা চালাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের এমন অপকৌশলের জবাব দেয়ার যথেষ্ট সুযোগ ও পন্থা চীনের হাতে রয়েছে।

Continue Reading

ফেসবুক আইডি হ্যাকড হলে সাথে সাথেই যা করবেন

নিজের ফেসবুক অনেকেই হ্যাক করার চেষ্টা করে আর এতে হ্যাকাররা অনেক সময় সফলও হয়ে যায়। আর যে কারো আইডি হ্যাক করেই হ্যাকার ক্ষতি করতে পারেন। সেটা অন্য কারো আইডিতে বাজে মেসেজ হোক বা নিজের পার্সোনাল অনেক বিষয়ে জেনে যেতে পারে। তবে ক্ষতি হ্যাকার করলেও নাম কিন্তু ব্যবকারীরই পরে। সেক্ষেত্রে আইডি হ্যাক হওয়ার সাথে সাথেই পদক্ষেপ […]

Continue Reading

মেসেঞ্জারে বড় পরিবর্তন আনছে ফেসবুক

সামাজিকমাধ্যম ফেসবুকের বার্তা আদান-প্রদান মাধ্যম মেসেঞ্জার। বর্তমান দুনিয়ায় এটিই সবচেয়ে জনপ্রিয় বার্তা প্রদানের মাধ্যম। কিন্তু এর মাধ্যমে অনেক সময় ছড়িয়ে পড়ে ভুল এবং ক্ষতিকর তথ্য। অনেক সময় ক্ষতিকর বা ভুল তথ্যও ভাইরাল হয়। এবার এই সমস্যা সমাধান করতে মেসেঞ্জারে ফরোয়ার্ডের সুযোগ সীমাবদ্ধ করার ঘোষণা দিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। ফেসবুক জানিয়েছে, হোয়াটসঅ্যাপের মতো একসঙ্গে পাঁচজনের বেশি বন্ধুকে […]

Continue Reading

১০০ টাকায় সারামাস ইন্টারনেট পাবেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা

দেশের পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম চলমান রাখার জন্য নামমাত্র মূল্যে ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ দেবে সরকারি মোবাইল অপারেটর টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেড। ইউজিসি পরিচালিত বিডিরেন প্লাটফর্ম ব্যবহারকারী দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এই সুবিধা পাবে। বর্তমানে ৪২টি পাবলিক ও ৬৮টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বিডিরেন প্লাটফর্ম ব্যবহার করছে। ছাত্রছাত্রীরা জুম অ্যাপলিকশনের মাধ্যমে অনলাইনে ক্লাসে অংশগ্রহণ করতে পারবে। […]

Continue Reading

অনলাইনে ইনকাম বা আউটসোর্সিং এর সঠিক দিক নির্দেশনা

বর্তমান সময়ে চাকরির প্রায় বিকল্প হয়ে উঠেছে আউটসোর্সিং।  আউটসোর্সিং করে আজকাল অনেকেই স্বাবলম্বী হচ্ছেন। অনেকেই আউটসোর্সিং কে পার্ট টাইম জব হিসেবে বেছে নিচ্ছেন অর্থাৎ কাজের ফাকে ফাকে আউটসোর্সিং করে বাড়তি আয় করছেন আবার অনেকে এটিকেই পেশা হিসেবে বেছে নিচ্ছেন। এতে যেমন বাংলাদেশে বেকারত্বের হার কমে যাচ্ছে তেমনি বাংলাদেশও বৈশ্বিক জিডিপিতে এগিয়ে যাচ্ছে। আউটসোর্সিং শুরু করার […]

Continue Reading

কিভাবে একজন গৃহিনী ঘরে বসে অনলাইন হতে টাকা ইনকাম করতে পারেন ও পেমেন্ট পাবেন বিকাশ/ রকেটের মাধ্যমে।

একজন গৃহিনী কর্তৃক অনলাইন হতে টাকা ইনকাম এর বিষয়টি বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে অবাস্তব, অবান্তর ও ভ্রান্ত ধারনার ন্যায় একটি গল্প কাহিনী। একজন বাংলাদেশী আধুনিক উচ্চ শিক্ষিতা নারী সহজে অনলাইনে আয়ের বিষয়টি বিশ্বাস করতে চাইবে না। সেই হিসেবে একজন গ্রামের অল্প শিক্ষিতা মেয়ে অনলাইনে আয়ের বিষয়টি বিশ্বাস করার কোন প্রশ্নই আসে না। আপনি গ্রামের কিংবা শহরের যেখানের […]

Continue Reading

রেজাল্ট ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার

রেজাল্ট ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার – রেজাল্ট এক্সপ্রেস   বিশ্ববিদ্যালয়ে রেজাল্ট তৈরি নিয়ে অনেক ধরনের জটিলতা থাকে। যেমন Retake, Partial Retake , Improvement, Academic Transcript, Tabulation  ইত্যাদি। যার ফলে অনেক সময় ভার্সিটির মান নিয়ে প্রশ্ন উঠে। এই জটিলতার সমাধান হিসেবে ”সফট ঘর” এর  ভার্সিটি রেজাল্ট প্রিপারেশন সফটওয়্যার “রেজাল্ট এক্সপ্রেস” যা সম্পুর্ন ডায়নামিক এবং নিরাপদ। এই সফটওয়্যার এর মাধ্যেমে খুব সহজে […]

Continue Reading

অ্যাপ্লিকেশন সফটওয়্যার এবং এর বিভাজন।

কম্পিউটার সফটওয়্যার (Computer software) বলতে বোঝায় একগুচ্ছ কম্পিউটার প্রোগ্রাম, কর্মপদ্ধতি ও ব্যবহারবিধি, যার সাহায্যে কম্পিউটারে নির্দিষ্ট প্রকারের কাজ সম্পাদন করা যায়। কম্পিউটার সফটওয়্যার প্রধানত ৩ প্রকার যথাঃ সিস্টেম সফটওয়্যার, প্রোগ্রামিং সফটওয়্যার, অ্যাপ্লিকেশন সফটওয়্যার । আজকের এই আর্টিকেলে অ্যাপ্লিকেশন সফটওয়্যার নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। অ্যাপ্লিকেশন সফটওয়্যার যে সব কম্পিউটার প্রোগ্রাম কম্পিউটারের ব্যাবহারিক সমস্যা সমাধান এবং তথ্য প্রক্রিয়াকরনের কাজে ব্যাবহৃত […]

Continue Reading

Browsing কি?

Browse শব্দ থেকে এসেছে Browsing। Browse শব্দের আভিধানিক অর্থ উপভােগের জন্য বইয়ের এখানে সেখানে পড়া। কিন্তু কম্পিউটারে Browse শব্দের অর্থ কোন লিষ্ট থেকে কোন কিছু খোঁজা। ইন্টারনেটে Browsing অর্থ হচ্ছে এক ওয়েব পেজ থেকে অন্য ওয়েব পেজে পরিভ্রমণ করা। ইন্টারনেটের মাধ্যমে ওয়েব ব্রাইজিং করে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের সার্ভার সমূহে রাখা ওয়েব পেজসমূহ দেখা এবং তথ্য […]

Continue Reading
image_pdfimage_print